কবিতার নাম “গোলসাঙ” – কবি সুদন্ত বর্মন

কবি সুদন্ত বর্মনের “গোলসাঙ” কবিতাখান পড়িলে বোঝা যায় গেরামের রাজবংশী কামতাপুরী ছাওয়ালার অবস্থা।


গোলসাঙ

🖋️লেখক: সুদন্ত বর্মন

ও আঈও মুই না পড়িম আর পড়া।

ফুল্লি উটি মাও মোর কয় ক্যানেরে চ্যাঙেরা?

বাড়ি হাতে ঘাটা হাটি যাঙ ভালে ভালে,

ইস্কুলের মাঠ পার হইলেই ,পড়ি যাঙ মুশকিলে।

চালি খান মোর বারান্দা আর দুবর হয় দরজা,

সোন্দাটা হয় প্রবেশ করা,অ্যামোনে কতো তরজা।

বায়রা টা মোর বাহির হয়,কওয়া টা হয় বলা,

পঙরটা সাতার হয় আর গালাটা হয় গলা।

সাগাইলা মোর আত্মীয় হয়,সোদরলা স্বজন,

দন্ডবতটা নমস্কার আর আটুস আহ্বান।

হাঙ্কুরা হয় হামাগুড়ি টোপলা হয় পুটলি,

বানান-ছানান নৈনাঙ্গার,স্যারের গালাগালি।

কিলকানিটাও কনুই হয়, অ্যামোনে কতো কান্ড।

নেঙুললা আঙগুল আর নিড্ডারু মেরুদন্ড।

কোচকি খানত কবজি নড়ে,হোতলাই হয় থুতনি,

হাটুয়া দুইটা হাটু হয়,পেত্তানিটা পেত্নী।

মমোক আসি মোম গলে যায়,ঢাকনাইলা নখ,

বিলাইটাও বিড়াল বটে,কাঊয়া টাও কাক।

গোলসাঙে মোর জীবন যাছে,কাটি যাছে দিন,

পায়াও যেন না পাওয়া মুই হয়া গেচুঙ হীন।

ভাব আচে মোর পোরকাশ নাই,চৌখ থাকিয়াও কানা,

বুদ্ধি-শুদ্ধি তামান আচে,জানিয়াও অজানা।

মুরগা টাও মোরগ হয়া,বেড়ায় ঘুরি ঘুরি,

কইতর টা পায়রা হয়া কুত্তিবা যায় উড়ি।

 দ্যাওয়াও অচিন আকাশ,দেইখলে খড়কি খুলি,

গোড়ের ফুত্তি দুরত যায়,প্রজাপতি বুলি।

মোর জীবনত ঘটি যাছে,অ্যামোনে গোলসাঙ,

কাহোকে আর নাপাঙ কবার,তোক খালি মা কঙ।


Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *


The reCAPTCHA verification period has expired. Please reload the page.