Use & Through=Rajbanshi/kamtapuri Nation.

#Use & #Through=Rajbanshi/kamtapuri Nation.
#Divide & #Rule=Rajbangshi/kamtapuri Nation

কখনো কং,কখনো বিজেপি,কখনো বামফ্রন্ট,কখনো টিএমসিপি রাজবংশী/কামতাপুরি জাতিকে যে ফুটবলের মতো ব্যবহার করছে রাজনৈতিক দলগুলি,তা বলার অপেক্ষা নেই l হুম দীর্ঘ 73 বৎসর ধরে l
এমতাবস্তায় এই ট্রপিক নিয়ে যদি কোনো সাংবাদিক প্রশ্ন করে আমাকে ——
#প্রশ্ন-আপনি বার বার অভিযোগ করছেন যে কলকাতা কেন্দিক, দিল্লি কেন্দ্রিক রাজনৈতিক দলগুলি নাকি আপনাদের ফুটবলের মতো ব্যবহার করছে,আপনাদের সংখ্যাগরিষ্ট ভোট দেখেও l তাহলে নিস্তার?

#উত্তর-শিক্ষা, অর্থনীতিতে উন্নয়ন l জাতির ইতিহাস নিয়ে চর্চা lদেখবেন এমনিতেই জাতীয়ত্ববোধে উদ্বুদ্ধ হতে বাধ্য l কিন্তূ শতকরা হারটা যেনো উচ্চপর্যায়ে পৌছায় l কেননা কম সংখক এগিয়ে গেলে বাকিদের মরাকান্না জাতিবাদী প্রেম দেখিয়ে ব্যবহার করতে আমাদের লোকেরই অসুবিধে হবে না l বর্তমানে তো তাই হচ্ছে l তাছাড়া সব জাতিই তো আর জাপানিদের মতো হতেপারে না l

#প্রশ্ন- এই মহৎ কাজকে বাস্তবায়িত করতে তো কোনো যুগপুরুষ এর দরকার বলে কি মনে হয় না আপনার?

#উত্তর-হুম,আগেই বলেছি সেক্রিফাইস দরকার সেক্রিফাইস l তথাকথিত শিক্ষিত রাজবংশী সমাজকে সেক্রিফাইস করতে হবে l
সেক্রিফাইস ছাড়া কেউ নেলসন, গান্ধীজি, নেতাজি, বিদ্যাসাগর, পঞ্চানন হয়ে ওঠেনি l

#প্রশ্ন-আচ্ছা,আপনাদের নয় অন্যান্য রাজনৈতিক দল আপনাদের ব্যবহার করছে l কিন্তূ আপনাদেরও তো দেশীয় রাজনৈতিক পার্টি আছে l
তাঁদের কি ভূমিকা,জাতিকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার?
#উত্তর-হুম, আমিও অপেক্ষায় আছি যে কবে আপনি এই প্রশ্ন করে বসে থাকবেন l
দেখুন নিজের ঊন্নতি যারা করতে পারেননি,তাঁদের পক্ষে জাতির উন্নতিও অসম্ভব l
তাই জনগণ যদি নিজের উন্নতি করতে না পারে l তাহলে সেটা আমাদের নেতাদের দোষ নেই l


#প্রশ্ন-তাহলে আপনাদের দেশীয় পার্টির নেতাগুলো কি করেছিল এতদিন?
#উত্তর- দেখুন,দেশীয় পার্টি আছে বলেই আজকে আমরা কলকাতা,দিল্লি পর্যন্ত রাজবংশী/কামতাপুরি শব্দটা শুনতে পাচ্ছি l তারা আছে বলেই আমাদের জাতিসত্বা এখনও বেঁচে আছে l
নয়তো 1950 সালের মতো যেমন করে কোচবিহার/কামতাপুর রাজ্যটাকে অন্যের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছিল l ঠিক সেভাবেই জাতিটাকেও অন্য কোনো প্রতিষ্ঠিত জাতি আমাদের আয়ত্ব করে নিতো l


#প্রশ্ন- তাহলে এতকিছু ভূমিকা থাকার পরেও কেনো আপনাদের দলগুলি সঠিক লক্ষে পৌঁছাতে পারেনি? তাহলে কি জনগণ তাঁদের প্রতি অনীহা প্রকাশ করছে?
#উত্তর-সঠিক লক্ষে না পৌঁছানোর অনেকগুলি কারণ থাকতে পারে l তার মধ্যে একটি হলো-ওরা নিজেইরা ডিভাইড l এতটাই মতবিরোধ এতটাই মাতবিরোধ যে আনুষ্ঠানিকভাবে তারা 4 ভাগে বিভক্ত l
আর অনীহা প্রকাশ হওয়ার কারণেও অনেকগুলি কারণ থাকতেও পারে l তার মধ্যে একটি প্রধান কারণ-দায়সারা রাজনীতি l
আসলে আমার জাতি একটা অগ্নিপুত্র/অগ্নিকন্যা লিডার খোঁজার অপেক্ষায় l
মনে রাখবেন,আজকের জ্যোতিবসু,মমতা একদিনেই আকাশ থেকে পড়ে এই জায়গায় কিন্তূ পৌঁছায়নি l


#প্রশ্ন-শুনলাম রাজ্য সরকার নাকি আপনাদের ভাষাকে সরকারি হিসাবে মান্যতা দিয়েছে l তো আপনাদের তো মমতা সরকারের প্রতি কৃতজ্ঞ হওয়া উচিৎ?

#উত্তর- হুম,অবশ্যই মমতা ব্যানার্জিকে আমি ব্যক্তিগত ভাবে ধন্যবাদ জানাই l কিন্তূ মনে রাখবেন উত্তরবঙ্গের খোঁদ টিএমসিপি পার্টির অনেক অরাজবংশী নেতাগুলো কিন্তূ এই মান্যতাকে ভালো চোঁখে দেখেননিl
আর আমাদের নেতাগুলো ভাষার জন্য 2 টো ডিম নিয়েছেন l কোনটা আসল ডিম,আর কোনটা নকল ডিম-আপনি ধরতেই পারবেন না l


#প্রশ্ন-মানে বুঝলাম না?
#উত্তর- বললাম না,ওরা লক্ষভ্রষ্ট,মতবিরোধে মেতে আছে l আমি তো স্বপ্নে মনে মনে ওদের চাবুক মারি চাবুক!


#প্রশ্ন-হটাৎ এমন কথা আপনার মুখ থেকে আমি কখনো আসা করিনি রায় সাহেব l
#উত্তর-ধুর মশাই, একি জাতির দুটো মাতৃভাষা স্বীকৃতি পৃথিবীতে কোন জাতির আছে l একটু উদাহরণ দেখান না l কোনো আলোচনা না করেই রাজবংশী ভাষা আবার কামতাপুরি ভাষা স্বীকৃতি নেওয়ার কোনো মানে হয়? আজও পর্যন্ত ওরা এক টেবিলে বসে এর সমাধান করতে পারেনি l ভাবা যায়! আবার তার মধ্যেই কোচ, ক্ষত্রিয়, নস্যশেখ এর কচকচানি বিভেদ l তাহলে চাবুক না মেরে কি পুজো করতে হবে?


#প্রশ্ন- তাহলে আপনি মনে করছেন যে জাতি গঠনে এক টেবিলে বসে ভাষার বিবাদ মিটানো খুব দ্রুত জরুরি?
#উত্তর- ইমিডিয়েটলি,ইমিডিয়েটলি l মনে রাখবেন এমন একটা সময় আসবে l যখন সন্মান পাওয়ার তো দূরের কথা,উল্টে মীরজাফরের লিস্টে ঢুকে ইতিহাসের পাতায় জ্বল জ্বল করবে পরবর্তী প্রজন্মের কাছে l যদি না এই ভাষার বিবাদের সুরাহা নাহয় l


#প্রশ্ন- আপনি কোন ভাষা স্বীকৃতির পক্ষে?
রাজবংশী না কামতাপুরি?
#উত্তর-দেখুন আমি তো আর ভাষাবিদ নই l তাছাড়া আমি বললেই যে সেই ভাষাই স্বীকৃতি হবে,এমনটাও নয় l
সুতরাং আমি মনে করি কোনো একটা ভাষা হলেই হলো l এক জাতির এক ভাষায় বিশ্বাসী l
এবং আমার জাতি ভাষা কোনো কালেই অন্য ভাষার উপভাষা ছিল না l তাই ভবিষ্যতেও যেনো কোনো ভাষার উপভাষা তকমা না পাই ইতিহাসেl ব্যাসl

Share this:

Leave a comment