kamata capital chikna

কামতা কুচবিহার রাজ্যের প্রথম রাজধানী চিকনা। Chikna, the first capital of independent Kamata Coochbehar. 

স্বাধীন কামতা কুচবিহার রাজ্যের প্রথম রাজধানী চিকনা, জেলা – কোকরাঝাড়

Mridul Narayan
Kumar Mridul Narayan

পঞ্চদশ শতাব্দীর শেষ দিকে গৌড়ের সুলতান হোসেন শাহের আক্রমণে ১৪৯৬খ্রিস্টাব্দে কামতা নগরের খেন সাম্রাজ্যের অবসান হয় এবং তাদের রাজধানী ধ্বংসপ্রাপ্ত হয়। খেন রাজত্বের অবসান এর ফলে এই বিস্তীর্ণ অঞ্চলে শুরু হয় চরম অরাজকতা, বিশৃঙ্খলা।দক্ষ প্রশাসক বা শাসকের অভাব ভীষণভাবে অনুভূত হয়।উত্তর-পূর্ব ভারতে অনেক ছোট ছোট সামন্ত রাজ্য তৈরি হয় এবং সমস্ত সামন্ত রাজাগণ একত্রিত হয়ে বিদেশি শাসকদের বিতাড়িত করার জন্য সঙ্ঘবদ্ধ হন। কেন্দ্রীয়ভাবে রাজা নির্বাচিত হন  হরিদাস মণ্ডল। হারিয়া বা হরিদাস মণ্ডল তার রাজত্বকালে রাজধানী স্থাপন করেছিলেন চিকনায়। বলা যেতে পারে চিকনা নগরী হরিদাস মণ্ডল কর্তৃক স্থাপিত হয়েছিল এবং কামতা কুচবিহার রাজ্যের প্রথম রাজধানী এই চিকনা ( Chikna, first capital of independent Kamata Coochbehar)। “গন্ধর্বনারায়নের বংশাবলিতে”এর স্বপক্ষে যুক্তিও পাওয়া যায় – 

“হারিয়াক আনি সবে মন্ডল পাতিলা।

 সেইদিন ধরি তৈতে অধিকারী ভৈলা।।”

রাজধানী চিকনা, জেলা – কোকরাঝাড়

মধ্যযুগে উত্তর-পূর্ব ভারতের এই ছোট রাজ্যটির সীমানা ছিল বর্তমান আসাম ভুটান সীমান্তবর্তী কোকড়াঝাড় জেলার  পূর্বের চম্পাবতী নদী এবং পশ্চিমে সরলভাঙা বা গোরং নদীর মধ্যখানে। এর উত্তরে ভুটানের পাহাড়ের নিম্নাঞ্চল এবং দক্ষিনে ব্রহ্মপুত্র নদী। চিকনাকে অনেক সময় চিকিনা নামেও বলা হয়। হারিয়া মন্ডল ওরফে হরিদাস মন্ডল তার যোগ্য উত্তরসূরী তথা মহাদেবের বরপুত্র বিশ্বসিংহকে রাজ্যের শাসন ভার অর্পণ করেন।

saralbhanga river chikna
River Saralbhanga

চিকনারাজ বিশ্বসিংয়ের অভিষেককালে প্রাচীন রীতি অনুসারে ব্রাহ্মণগণ তাকে রাজোচিত বিশ্বসিংহ নাম ও উপাধি প্রদান করলেন। তার এই অভিষেক সু-সম্পন্ন হয় চিকনা প্রাসাদে।অভিষেককালে তার মাথায় ছত্র ধারণ করেছিলেন তাঁর অনুজ ভ্রাতা শিষ্যসিংহ। শাসনভার গ্রহণ করার পর মহারাজা বিশ্বসিংহ কামতা নগরীর বিশৃংখলা, অরাজকতার সুযোগে কামতা নগরী (Kamata Nagari) আক্রমণ করলেন এবং এই অঞ্চলের বিস্তীর্ণ এলাকা, ব্রম্মপুত্রের উভয়কূলের ছোট ছোট রাজ্য, ডুয়ার্সের অনেকাংশ তিনি ও তার ভাই দখল করে নিতে সফল হলেন। এমনি করেই অল্পকালের মধ্যে তার রাজ্যের পরিধি বিস্তৃতি লাভ করে। কামতানগরীর অধিপতি হিসেবে তিনি “কামতেশ্বর” (Kamateshwar) উপাধি ধারণ করলেন এবং তার শাসনকালে এই অঞ্চলের শান্তি-শৃঙ্খলা,স্থিতিবস্থা ফিরে আসে। স্বর্ণ যুগের সূচনা হয় কামতা নগরে।

ultapani forest
Ultapani Range – Kokrajhar

হরিয়া মন্ডল নির্মিত পাহাড়ি  চিকনা দুর্গ (Chikna Fort) যা পরবর্তীকালে বিশ্বসিংহের দুর্গ নামে পরিচিত ছিল। কোকরাঝাড় জেলার উল্টাপানি (Ultapani) গ্রামের চিকনাঝাড়ের দুর্গটি ভুটান যুদ্ধের জন্য মাঝেমাঝে শিরোনামে এসেছিল। বিশ্বসিংহ তার মায়ের আদেশে তার রাজধানী চিকনা থেকে সমতলে স্থানান্তরিত করেছিলেন হিঙ্গুলাবাসে (Hingulabas) । হিঙ্গুলাবাস বর্তমান আলিপুরদুয়ার জেলার (Hingulabas, Alipurduar) মহাকালগুড়ি গ্রামে ছিপরা ফরেস্টে অবস্থিত। আবার এও আমরা ধরে নিতে পারি, বর্ধিত রাজ্যের শাসন ব্যবস্থা পরিচালনার সুবিধার জন্য তার রাজ্যে এক প্রান্তে থাকা রাজধানী চিকনা পরিত্যাগ করে সমতলে নিয়ে এসেছিলেন। রাজ্য শাসনের বাস্তব কারণের জন্যই তিনি রাজধানী পরিবর্তন করেছিলেন এ কথা বলার অপেক্ষা রাখে না। সরলডাঙ্গা এবং চম্পাবতী নদীর মাঝখানে চিকনা নগরীর ধ্বংসাবশেষ এখনো বিদ্যমান রয়েছে। চিকনা নগরীর (Chikna Nagari) চারপাশে সোনাবাড়ি, মহাদেব, বামনকিল্লা, বাঁশবাড়ি, শিকারপুর এবং নয়াগড় নামক স্থানগুলিতে এখনো দুর্গের চিহ্ন দেখা যায়। কয়েকশো বছর অতিক্রম হয়ে গেলেও ইতিহাসের নিদর্শন এবং জ্বলন্ত প্রমাণ গুলি বলে দেয় কুচবিহার রাজবংশের গৌরব। এই গৌরবকে বইয়ের পাতায় লিপিবদ্ধ না করলেও এই চিহ্নগুলি কখনোই মুছে ফেলা যাবে না। 

এলাকা বিভাজন, জাতি বিভাজন হলেও দেশীয় রাজ্য কুচবিহারের গৌরবান্বিত ইতিহাস কোন না কোন একদিন লিপিবদ্ধ আকারে প্রকাশ পাবেই। মানুষ জানতে পারবে কুচবিহার রাজবংশের দীর্ঘ ইতিহাস ও তার কর্মকাণ্ড। এত বিশাল ব্যাপ্তি কর্মকাণ্ড কেন এখনো অদৃশ্য, অন্তরালে রয়েছে ভাবার সময় এসেছে। আমরা সঠিক ইতিহাস, নিদর্শন, কীর্তিকলাপ কেন জানতে পারবো না? ইতিহাস যেমন জানার আমার অধিকার আছে, তেমনি ইতিহাসকে জনসমক্ষে তুলে ধরার প্রয়োজন আছে। প্রজাবৎসল মহারাজা জগদ্দীপেন্দ্র ভূপবাহাদুর ভারত ইউনিয়নের অন্তর্ভুক্ত হয়েছিল প্রজাগনের স্বার্থে। ভারত সরকার ‘C’ Category রাজ্যের তকমা দিয়েছিলেন। সরকারের সঙ্গে Merger Agreement করেছিলেন, সরকারকে দিয়েছিলেন নিজস্ব সম্পদ। সরকার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল, অঙ্গীকার করেছিল ।তাহলে কি পেলাম আমরা? প্রতিশ্রুতি কি তাহলে গুড়ে বালি ? 

ইতিহাস বিজড়িত চিকনা নগরীতে যাওয়ার ইচ্ছে থাকলেও প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারনে যাওয়া হয়ে ওঠেনি। ভবিষ্যতে সুযোগ পেলে কোন একদিন অবশ্যই যাবো।

English Version —

Chikna, the first capital of the independent state of Coochbehar, District: -Kokrajhar

In the late fifteenth century, the Khen Empire of Kamta Nagar came to an end in 1496 AD with the invasion of Sultan Hussain Shah of Gaur and their capital was destroyed. The end of the Khen dynasty led to extreme anarchy and chaos in this vast region. The lack of a competent administrator or ruler was severely felt Haridas Mandal was elected king centrally. There is also an argument in favor of “Gandharvanarayan’s genealogy” —

“Hariak ani barely Mandal Patila.

 Vaila is entitled to be held for that day. “

Capital Chikna , District Kokrajhar

Hariya or Haridas Mandal established its capital at Chikna during his reign Chikna is said to have been founded by Haridas Mandal. In the Middle Ages, this small state of northeastern India was bounded on the east by the Champabati river in the Kokrajhar district bordering present-day Assam and on the west by the Saralbhanga or Gorang river Chikna is also often referred to as Chikina.

At the inauguration of Chikna raja Biswasingh, according to the ancient custom, the Brahmins gave him the name and title of Rajochit Biswasingh His inauguration was completed at the Chikna Palace. After taking over the reign, Maharaja Biswasingh invaded the city of Kamta on the pretext of chaos and anarchy, and he and his brother succeeded in capturing large areas of the region, small kingdoms on both sides of the Brahmaputra. As the ruler of Kamata nagar, he took the title of “Kamateshwar” and during his reign, peace and order and stability of the region were restored. The golden age began in Kamata nagar.

Chikna hill built by Hariya Mandal which was later known as Biswasingh fort. The fort at Chiknajhar in the village of Ultapani in Kokrajhar district came to the fore from time to time for the Bhutanese war. Again, we can assume that the capital at one end of his kingdom was brought to the plains by abandoning Chikna for the convenience of governing the extended state. It goes without saying that he changed the capital for the real reason of state rule. The ruins of Chikna city still exist between Saraldanga and Champabati rivers. Hundreds of years have passed, but the monuments of history and the burning evidence show the glory of the Cooch Behar dynasty.

Despite the division of the area, the division of the nation, the glorious history of the native state of Cooch Behar will one day be revealed in written form. People will know the long history of the Cooch Behar dynasty and its activities. It’s time to dump her and move on Why can’t we know the exact history, the patterns, the feats? Just as I have a right to know history, I need to make history known to the people. Merger agreement with the government, gave the government its own resources. The government promised, promised. So what did we get? Is the promise then sand?

কামতা কুচবিহার সম্পর্কে জানতে আরো পড়ুন –

গৌরিপুর রাজবাড়ি – ধুবরী। Gauripur Palace, Dhubri

কুচবিহার – আসাম রাজকাহিনী। Coochbehar Assam Rajkahini

বিজনী রাজপরিবার, চিরাং জেলা। Bijni Royal Family 

অভয়পুরী রাজপরিবার, বঙ্গাইগাও। Abhayapuri Royal Family

গৌরিপুর রাজবাড়ি – ধুবরী। Gauripur Palace, Dhubri

Leave a Comment

Your email address will not be published.