Poem

“উঠিবে না বেলা মোর,
রইদ আসি করিবে না রাও?
মুই কি অ্যামনে রইম
কুনদিনও চিনিবে না কাও?” – পিযূস সরকার

Poetry is a form of literature that uses aesthetic and rhythmic qualities of language. Authors can write and post poems on this page in any language such as Kamtapuri/Rajbanshi, Assamese, Bengali and english.

কবিতার নাম “কৃষকের ক্ষেত” – কবি রোহিত বর্মন।

কৃষকের ক্ষেত 📝রোহিত বর্মন চারিদিকে সোনালী রঙে ভরা মাঠ রোজ সকালে সবাই মিলে চলে হাট। যেই দিকে দুনয়ন যায় শস্য ভরা চারিদিকে কৃষকের ক্ষেত দিয়ে মোরা। রোজ সকালে চাষির দল চলছে মাঠে সকাল-বিকাল সবাই মিলে ধান কাটে। এই ধান দিয়ে তৈরি হয় চাউল ওই চাউল দিয়ে সেবা করবে বাউল। বলদ দিয়ে করছে কৃষক মাঠ চাষ …

কবিতার নাম “কৃষকের ক্ষেত” – কবি রোহিত বর্মন। Read More »

কবিতার নাম “মুই কায় … ?” – কবি রোহিত বর্মন। 

মুই কায় … ?  📝রোহিত বর্মন মুই কায়?      উপেন। মুই তো মোক চিনির না পাছো! তোক তো ভাল করি চিনির পাছো। জানিস উপেন মুই জানো না মোর নাম কি? কিন্তুু জানিস উপেন তোর নাম কি, মুই জানো। মোর শিক্ষা ছিল মনে হয় পুথিগতা! তোর শিক্ষা ছিল মনে হয়, পুছোং রতা। জানিস উপেন নৈজ্জা …

কবিতার নাম “মুই কায় … ?” – কবি রোহিত বর্মন।  Read More »

কবিতার নাম “কামতা মাওয়ের রুপ” – কবি রোহিত বর্মন

কামতা মাওয়ের রুপ 📝রোহিত বর্মন, ১১/০৯/১৯ কামতা মোরে হে মাও তোমারে যে মুই ছাও। দুই চোখ যায় যেদি তোমাকে দেখোং খালি সেদি। রসত ভরা এই গাও গর্ব করিম তোমার ছাও।। আখ খুলি দেখি হামা চার পাশত তোমায় তোমা। তিস্তা তোর্সা তোমার বুখত গরিবের দেয় ভাত মুখত। ঠাকুর সম্রাট জন্ম নিছে হামাক কতো জ্ঞান দিছে। বিশ্ব …

কবিতার নাম “কামতা মাওয়ের রুপ” – কবি রোহিত বর্মন Read More »

কবিতার নাম “কাঙ্গাল মুই” – কবি রোহিত বর্মন।

কাঙ্গাল মুই 📝রোহিত বর্মন কবি মুই কাঙ্গাল! ক্ষ্যাপা ধনি নাল। মানষির আইসে নাই এলাং চেতন! আরো আইসে নাই এলাং হুস। মুই কাঙ্গাল! জানিস না তুই , কেনে কাঙ্গাল মুই! মোর চিকরন শুনি না আইসে কাউ, মুই গালা ফাটিয়া চিকরু তাউ! চোখের আগালত ঘুরে মানষি পাছ ফিরি তাং দেখে না হুটা কোন মানষি। মুই মোর ভাষার …

কবিতার নাম “কাঙ্গাল মুই” – কবি রোহিত বর্মন। Read More »

চর্যাপদের টেন্টনপাদ আর লুইপাদের কামতাপুরী / রাজবংশী ভাষাত অনুবাদ – বাউদিয়া রায়।

চর্যাপদের অনুবাদ (1)  📝লেখাইয়া: বাউদিয়া রায়  টিলার উপরে করিসুরে ডেরা নাই কুনো মোর পড়শী, হাঁড়িৎ গুটিকো ভাত নাই মোর জ্বালা – দুখ দিবানিশি। ঘরের মাঝিয়া ভরি গেল মোর সাপ ব্যাঙ্ পকা – মাকড়ে, ছেকা দুধ ভাই কেমনে যাবেরে ঘুরিয়া গাইয়ের বাটেরে। গাইকিনা মোর দেয় না বাছুর, বিয়াছে হালুয়া গরু, সাধনের পীঠ ভরো তিন সাঁজ ছেকিবার …

চর্যাপদের টেন্টনপাদ আর লুইপাদের কামতাপুরী / রাজবংশী ভাষাত অনুবাদ – বাউদিয়া রায়। Read More »

কবিতার নাম “হায়রে ফুটপাথ” – কবি রোহিত বর্মন।

হায়রে ফুটপাথ 📝লেখাইয়া: রোহিত বর্মন ওই দিন দেখ ছিলুং তোক আস্তাত থাকি ছিলু্ তুই, আন্ধার আতিত পাশোত না ছিল কাও কি করিম মুই? চোখের আগালোত নাই ছিলু্ খালি  তুই আরো ভাইল্লা, নিরুপায় ছিলু মুই টিকাত ছিল খালি গামছা সাইলা । ভাইল্লা আতিত নিন্দাস, ভয় ডর  না খায়া যখন, তোমার বগল দিয়া যায় কতো গাড়ি দেখেই …

কবিতার নাম “হায়রে ফুটপাথ” – কবি রোহিত বর্মন। Read More »

কবিতার নাম “তোর্সা নদী” – কবি রোহিত বর্মন।

তোর্সা নদী  📝লেখাইয়া: রোহিত বর্মন  তোর্সা নদীর নাম ছিল এক সময়। বাবা পীড়ের নাম এলাং মনত রয়। নদীর হুইছে আজি দিশা হারার বেলা। নদী শুখিয়া চর বেড়াইছে এলা মেলা। নদীর চরত মানষি করে খালি রাজ । হামার মানষি করে খালি কামাই কাজ। নদীক দেখিয়া বুখ ওঠে ধারাও করি । নদীর বুখোত নাই আজিকা নাও তরি । …

কবিতার নাম “তোর্সা নদী” – কবি রোহিত বর্মন। Read More »

কবি তুষার বন্দ্যোপাধ্যায়ের “অললই ঝললই মাদারের ফুল”

অললই ঝললই মাদারের ফুল 📝লেখাইয়া: তুষার বন্দ্যোপাধ্যায় ভাষা: কামতাপুরী / রাজবংশী অললই ঝললই মাদারের ফুল কইনার কানত্ ঝুমকার ফুল মাইগে মাই আইগে আই বড়বাড়ি দেখিশুনি আসিনি গে বাই সেন্দুর মুছিয়া বাপের বাড়ি যাই। কইনা কহেছে বাপের বাড়ি যাই রাখিয়া আইসেন কুনো কাথা নাই খুলিয়া ফেলাইছে খোঁপার চুল। না জানে আন্ধন না জানে বাড়ন শাকের সোয়াদ …

কবি তুষার বন্দ্যোপাধ্যায়ের “অললই ঝললই মাদারের ফুল” Read More »

কবিতার নাম “অবুঝ” – কবি ক্ষিতীশ বর্মন

অবুঝ 📝ক্ষিতীশ বর্মন   পাছিলা পাখে বাবুর ঘর  তোর সব মারি দ্যায়,  তুই কইস.. “বা,বাবু ভালো লাগিতেছে আমাকে।”    আর ঝেলা তোর আগ পাসে  তোর বন্ধু বান্ধব,ভাই, ভাতিজা দাদা বৌদি,বাপ, মাও,  তোর ভালবাসা চায়,  একমুটি হাসি চায়,  একটা সলই কাঠি চায়,  আগুন জ্বলে বার বাদে  শিক্ষার ওগুন,চেতনার অঘুন।  তুই হার কিপটা সাজিয়া ডিককিরি উঠিস…    …

কবিতার নাম “অবুঝ” – কবি ক্ষিতীশ বর্মন Read More »

কবিতার নাম “বিদায়” – কবি দুর্গেশ বর্মন

বিদায় 📝 দুর্গেশ বর্মন ডিজিটাল যুগোত বইনি সমায় না হইতে বিদায়ের টিকিট হাতোত।আটুস – “ভাগবান চেংড়াটা ঝাতে শাস্তি পায় “একিনায় কিতে ভাষা ?ফেসবুক, মেসেস, লাইক, কমেন্ট। আরো কাও কাও – ‘ইগনোর কর ফালতু’ খালি সমায় ফ্যালে থোয়া?- এইলায় ভাষা? কারন – ‘কুকরিকানা ‘ ‘নায়ক ‘ – ঘোল খোয়াইছে, ঘুস খোয়াইছে সমায়োক। জীবন কি মুল্য হীন? …

কবিতার নাম “বিদায়” – কবি দুর্গেশ বর্মন Read More »