কান্তেশ্বর রাজার রাজপুরী নির্মাণ / গোসানী মঙ্গল

চতুর্থ লহরী [ রাজপুরী নির্মাণ ] কৈলাসে থাকিয়া চণ্ডী করিল হুঙ্কার । আইল বিশ্বকর্মা দেব চণ্ডীর দুয়ার ।। বিশ্বকর্মা প্রণমিল চণ্ডীর চরণ। কি আজ্ঞা করহ চণ্ডী করিব তত ক্ষণ ।। ১৩১ চণ্ডী কহে বিশ্বকর্মা চল য়েইক্ষণ। জামবাড়ী নগরে পুরি করহ নির্মাণ।। কান্তনাথ হবে রাজা রাজ্যের পালন। য়েই হেতু তোমাকে করিলাম স্মরণ ॥ ১৩২ শুনিয়া বিশ্বকর্মা

দশভুজা চণ্ডীর প্রতি কান্তেশ্বরের স্তুতি /গোসানী মঙ্গল

কামতাপুরী সাহিত্য – গোসানী মঙ্গল [ তৃতীয় লহরী ] দুই প্রহর রাত্রি হইল অঙ্গনা ভাবিয়া। পূর্ব বিবরণ কহে পুত্র কোলে নিঞা॥ শুন বাপু কান্তনাথ চণ্ডী দিছে বর জামবাড়ী নগরে তুমি হইয়া নৃপবর। ১০৮ আপন অদৃষ্ট দুখ না হয় খণ্ডন। আর চণ্ডীর বর বাপু ফলে কদাচন ॥ মায়ে পুতে নিদ্রা গেল তৃতীয়া প্রহরে। চণ্ডী স্বপন করে

ভক্তিশ্বরের স্বর্গে গমন থাকি কান্তনাথের দাসত্ব মোচন

কামতাপুরী সাহিত্য – গোসানী মঙ্গল [ ভক্তিশ্বরের স্বর্গে গমন] ছয় বচ্ছর কান্তনাথ হইল যখন । দৈবে বিধির পাকে হইল ঘটন ॥ যম কহে চিত্রগুপ্ত করহ বিচার কত পাপ পুণ্য য়ায় আছে ভক্তি-শ্বর। ৬১ চিত্রগুপ্ত কহে রাজ কর অবধান ভক্তিশ্বর সমধর্ম্মী নাই কোন জন। ভূত চতুদ্দর্শী পালে দুর্গা অষ্টমী। শিব রাত্রি পালে আর জয়ন্তী অষ্টমী॥ ৬২

গোসানী মঙ্গল কাব্যগ্রন্থের অঙ্গনার স্বপ্ন দর্শন, কান্তেশ্বরের জন্ম, কামতেশ্বরী মন্দিরের বড় দেউরীগণ। 

[১ম লহরী] নাম গুরু নিরন্জন পিতা মাতার শ্রীচরণ যাঁর তেজে ব্রহ্মান্ড সৃজন।  নম দেব গণপতি দুর্গা লক্ষ্মী সরস্বতী,  হরি হর ব্রহ্মা নারায়ণ।। ১ হরেন্দ্রনারায়ণ রাজা বেহারে পূজিত প্রজা  যাঁর যশে ঘোষে সর্বজন।  সেই রাজ্যে করে ঘর সাধু সে করুণাকর  পরম বৈষ্ণব গুণধাম।। ২ তাহার তনয় য়েক পাইয়া চৈতন্য ভেক  চিন্তে হরি-চরণ-কমল। তাহে আদেশীলা দেবী কহে

Enable notifications on latest Posts & updates? Yes >Go to Home Page or Non Amp version Page and \"Allow\"