কোচ কামতার মহারাজা প্রাণনারায়ণের রাজত্বকালত বিভিন্ন মন্দির প্রতিষ্ঠা। 

কামতেশ্বরী মন্দির

মহারাজা প্রাণনারায়ণ (১৬৩২-১৬৬৫) মন্ত্রী: ভবনাথ কার্যী  মহারাজা প্রাণনারায়ণ ১৬৩২ খ্রীষ্টাব্দে সিংহাসনত বৈসেন। কিন্তুক রাজ্যচালনার বিচক্ষণতা না থাকাতে উমার সমায়ৎ বারেবারে কোচ  কামতা রাজ্য বিপদের সম্মুখীন হৈচিল। জ্ঞাতি গোষ্ঠীর সোদেও প্রায়শই যুদ্ধ নাগি  শক্তিক্ষয় করছিলেন। ১৬৩২ খ্রীষ্টাব্দের একটা মুদ্রা আবিষ্কৃত হওয়ায় আর ‘নারায়ণী মুদ্রা’ অধ্যায়ত প্রাণ নারায়ণের উল্লেখ থাকাতে উমার সিংহাসনত বৈসা নিয়া ঐক্যমতে পৌঁছানাে যায়। ১৬৩২ খ্রীষ্টাব্দে বীর নারায়ণ বাচি ছিল। সেই

Documents and correspondences regarding The Cooch Behar State Assimilation, 1950

F. 17/154/50-Judicial.Ministry of Home Affairs. Subject: The Cooch Behar (Assimilation of State Laws)Bill, 1950 Serial No. 1.The Cooch Behar (Assimilation of State Laws) Bill, 1950, which was passed by the State Legislature on the 4th October 1950, has been submitted for obtaining the assent of the President to the Bill. The Bill has been reserved

“গোসানীমঙ্গল” কাব্যগ্রন্থ সম্পর্কে কিছু তৈথ্য।

কোচবিহারের রাজসভার বাইরাতেও মেলা কবি সাহিত্য রচনা করিছিলেন যেগুলা আইজকাল আর খুব এখনা পাওয়া যায়না। সেইনাকান করি “গোসানীমঙ্গল” রচিত হয় মহারাজা হরেন্দ্রনারায়ণের আমলত আর তা রচনা করেন রাধাকৃষ্ণ দাসবৈরাগী। 1899 সালত এই পুথিখান বই আকারে বির করেন গোসানীমারি স্কুলের হেডমাস্টার শ্রী ব্রজচন্দ্র মজুমদার। শ্রী ব্রজচন্দ্র মজুমদার এই বইখান বির করির কারন হিসাবে বিজ্ঞাপনের জাগাত যা

ভুল তথ্য /Wrong Information Provided Cooch Behar Palace Museum Authority.

I dont know whether you have noticed or not that there is a silly mistake in photo gallery display inside Cooch Behar Palace. The mistake is, portrait of Maharani Indira Devi named as Gayatri Devi.  It is requested to ASI authority to make correction. Because visitors will get wrong information if such mistake remain as such

Enable notifications on latest Posts & updates? Yes >Go to Home Page or Non Amp version Page and \"Allow\"